Alliance for Bangladesh Worker Safety

বাংলা

বাংলাদেশ পোশাক শিল্পের নিরাপত্তা জোরদারের গুরুত্ব উপলব্ধির স্মারকলিপিতে অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি এবং এনএফপিএ-এর স্বাক্ষর প্রদান

.

কর্মচারীদের নিরাপত্তা রক্ষা এবং অনিরাপদ কর্মপরিবেশের কারণে যে সমস্ত মর্মান্তিক দুর্ঘটনাগুলো ঘটে থাকে তা প্রতিরোধ করার লক্ষ্যে এক যৌথ উদ্যোগ ।

ওয়াশিংটন, ডি.সি – অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি আজকে ন্যাশনাল ফায়ার প্রটেকশন অ্যাসোসিয়েশন (এনএফপিএ) এর সঙ্গে অংশিদ্বারিত্বের একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা প্রদান করছে, এনএফপিএ আন্তর্জাতিক অগ্নি নিরাপত্তাবিষয়ক একটি নেতৃস্থানীয় সংস্থা । দুই সংস্থা কতৃক স্বাক্ষরিত এই মেমোরেন্ডাম অব আন্ডারস্ট্যান্ডিং আজকে বিধিবদ্ধ হতে যাচ্ছে, এই যৌথ সহযোগিতার কারণে তথ্য,দিক নির্দেশনা এবং ট্রেইনিং রিসোর্সে প্রবেশাধিকার সহ অ্যালায়েন্স সদস্য, কারখানা,শ্রমিক এবং অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের ক্ষমতায়ন করবে যা বাংলাদেশ তৈরি পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের স্বাস্থ্য এবং নিরাপত্তা বিধানে সহায়ক হয়ে উঠবে ।

photo3

photo2

ওয়াশিংটন ডি.সি – অ্যালায়েন্স স্বতন্ত্র সভাপতি অ্যালেন টশার এবং এন এফপিএ প্রেসিডেন্ট জেমস টি. পাওলে বাংলাদেশ পোশাক কারখানাগুলোর নিরাপত্তা জোরদারের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশিদারিত্বে স্বাক্ষর করছেন ।

প্রকাশিত সম্পূর্ণটি পড়ুন এখানে

অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটির বার্ষিক প্রতিবেদন

.

অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটির প্রথম বছরের পদক্ষেপ হিসেবে আমরা সরেজমিনে কিছু কিছু অগ্রগতির রূপরেখা নির্ধারণ করেছি এটা নিশ্চিত করতে যে বাংলাদেশের কোনো শ্রমিকদের যেনো জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জীবিকা অর্জন করতে না হয় ।

প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আগুনের বিরুদ্ধে লড়াই (ভিডিও)

.

মা্ত্র এক বছরে, অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি বাংলাদেশ তৈরি পোশাক শিল্পে ভবন,অগ্নি এবং বৈদ্যুতিক নিরাপত্তার ক্ষেত্রে ব্যাপক অগ্রগতি সাধন করেছে । সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এটা বলা যায় যে যদি কারখানার ব্যবস্থাপনা কতৃপক্ষ এবং শ্রমিকরা এক সাথে কাজ না করে এবং অগ্নি নিরাপত্তা প্রতিরোধের বিষয়টি যদি গুরুত্বের সঙ্গে না নেন তাহলে প্রানহানির সম্ভাবনা থেকেই যায়, । অ্যালায়েন্স বর্তমানে ৬০০টি কারখানায় এক মিলিওনেরও বেশি শ্রমিকদের সাথে কাজ করছে, বিশেষ করে অগ্নি নিরাপত্তা প্রশিক্ষণ বিষয়ে,যা মূলত পাঁছ বছরের ফ্যাক্টরি রেমিডিয়েশন পরিকল্পনার প্রারম্ভ মাত্র । এটি শুরু হয়েছে অগ্নি নিরাপত্তা বিষয়ক শ্রমিকদের মৌলিক জ্ঞান যাচাইয়ের লক্ষ্যে পরিচালিত জরিপের মধ্যে দিয়ে, এরপর অনুষ্ঠিত হয়েছে “ট্রেইন-দি-ট্রেইনার” সেশন এবং ইন-ফ্যাক্টরি ট্রেইনিং । অ্যালায়েন্স ইতিমধ্যেই এটার ফল পেতে শুরু করেছে ।

অগ্নি নিরাপত্তা একটি যৌথ প্রচেষ্টা, এবং প্রত্যেকেই যখন একসাথে কাজ করবে এবং নিজেদের সুরক্ষিত রাখবে তখন বাংলাদেশে শ্রমিকদের নিরাপত্তা সহজেই অর্জনযোগ্য হয়ে উঠবে ।

alliance-video

রানা প্লাজার এক বছর পূর্তি: বাস্তব অগ্রগতি প্রক্রিয়াধীন । এখনও অনেক কাজ করতে হবে ।

.

One-Year Anniversary of Rana Plazaএক বছর আগে রানা প্লাজা ধসের ঘটনা বাংলাদেশের গার্মেন্টস ফ্যাক্টরীর ইতিহাসে একটি অন্যতম ভয়াবহ মর্মান্তিক দূর্ঘ্টনা। ভবন ধসের পরবর্তি  সপ্তাহগুলোয় এই বিপর্যয়ের ভয়বহতা এবং এতে ক্ষতিগ্রস্থ ও তাদের পরিবারের উপর এর যে ব্যাপকবিস্তারি  প্রভাব পড়েছিল তা সারা বিশ্বব্যাপী আমাদের এই সময়ের অন্যতম অতীব জরুরী মানবাধিকার ইস্যূ হিসেবে বিতর্কের ঝড় তুলেছিল।

রানা প্লাজা এবং বাংলাদেশের পোশাকশিল্পের সাথে জড়িত সরকার, ব্যবসায়ী, শ্রমিক এবং সুশিলসমাজ প্রত্যেকেই উপলব্ধি করতে পেরেছিলেন যে একটি পরিবর্তন আনয়নের জন্য যথাযথ উদ্যোগ নেবার এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ মুহুর্ত।

এক বছর পর, অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি – উত্তর আমেরিকান ২৬ টি কম্পানির একটি দ্বায়বদ্ধতামূলক উদ্যোগ - শ্রমিকদের নিরাপত্তা উন্নয়নে ইতিমধ্যেই বাস্তব অগ্রগতি অর্জন করতে শুরু করেছে। এই প্রথম, অগ্নি এবং স্থাপনা নিরাপত্তা বিষয়ক একটি আন্তজার্তিক মানদন্ড প্রতিষ্ঠিত করা হয়েছে।  আর এই মানদন্ডের আলোকে আমরা কয়েকশত কারখানা পরিদর্শনের কাজ সমাপ্ত করেছি। যার ভিতর মুখ্য ছিল অগ্নি নিরোধক যন্ত্র, শত শত ফায়ারডোর সংস্থাপন এবং উন্নত কাঠামোগত অখন্ডতা । শ্রমিক ক্ষমতায়নের উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে যার ভেতর অন্তর্ভূক্ত রয়েছে নিরাপত্তা প্রশিক্ষণ, কারখানার শ্রমিক এবং ম্যানেজারদের জন্য একটি নতুন নিরাপত্তা প্রশিক্ষণ পাঠ্যক্রম এবং একটি গোপন হেল্পলাইন যার মাধ্যমে শ্রমিকেরা নিজেদের নাম গোপন করে তাদের সমস্যার কথা জানাতে পারবে। সরকার, শ্রমিক এবং প্রাইভেট সেক্টরের সহযোগীতায় আমাদের এই কাজটির নেতৃত্ব প্রদান এবং সরেজমিনে বাস্তবায়নের কাজটি করছে বাংলাদেশীরা ।

বিদ্যমান কারখানাগুলোর জন্য অগ্নি নিরাপত্তা এবং অবকাঠামোগত অখন্ডতা বিষয়ক খসড়া মূল্যায়ন

.

নতুন প্রতিবেদন

বিদ্যমান কারখানাগুলোর জন্য অগ্নি নিরাপত্তা এবং অবকাঠামোগত অখন্ডতা বিষয়ক খসড়া মূল্যায়ন

Issued by Committee on Technical Standards and Inspections Of THE ALLIANCE FOR BANGLADESH WORKER SAFETY ISSUED FOR FINAL REVIEW AND COMMENT

সম্পুর্ণ প্রতিবেদনটি পেতে এখানে ডাউনলোড করুন

অ্যালায়েন্স প্রচেষ্টার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে শ্রমিকদের অধিকার

.

গত সপ্তাহে বাংলাদেশ গার্মেন্ট সেক্টরে একটি নিরাপদ কর্মপরিবেশ এবং শ্রমিকরা যেন চাকরি হারানোর ভয়ভীতি ছাড়াই তাদের সমস্যার বাপারে যোগাযোগ করতে সক্ষম হয় তা নিশ্চিত করতে অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি তাদের প্রতিশ্রুতি  পুনর্ব্যক্ত করেছে । অ্যালায়েন্স সদস্যদের ভেতর যে চুক্তি হয়েছিলো তার ভেতর এই বিষয়টি সবসময়ই একটি কেন্দ্রিয় উপাদান হিসেবে ছিল। কিন্তু অনিরাপদ পরিবেশে চাকরি হারানোর ভয়ভীতি ছাড়াই  শ্রমিকদের কাজে অস্বীকৃতি জানানোর অধিকারকে সুষ্ঠুভাবে আইনে পরিণত করার লক্ষ্যে অ্যালায়েন্স সদস্যরা কিছু বাড়তি পদক্ষেপ নিয়েছেন। নিরাপদ কারখানা গড়ে তুলতে হলে ম্যানেজমেন্ট এর সঙ্গে নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে খোলাখুলিভাবে শ্রমিকদের  কথা বলতে পারার সক্ষমতা অর্জন অত্যন্ত জরুরী এবং অ্যালায়েন্স সদস্যরা  শ্রমিকদের এই অধিকারের পরিপূর্ণ বাস্তবায়ন এবং নিরাপত্তা প্রদান নিশ্চিতকরণে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

সম্পূর্ণ সংশোধনী এখানে পাবেন

সরকার,শ্রমিক এবং আন্তর্জাতিক উন্নয়ন-এর বিশিষ্ট নেতৃবৃন্দের অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি উপদেষ্টা পর্ষদে যোগদান

.

আসন্ন প্রকাশের জন্য: এপ্রিল ৩, ২০১৪

সরকার,শ্রমিক এবং আন্তর্জাতিক উন্নয়ন-এর বিশিষ্ট নেতৃবৃন্দ অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি উপদেষ্টা পর্ষদে যোগদান করেছেন ।

ওয়াশিংটন, ডি.সি.¬¬¬¬¬¬¬ – উপদেষ্টা পর্ষদে ১২ জন বাংলাদেশি এবং আন্তর্জাতিক নেতৃবৃন্দের যোগদান ঘোষণা করতে পেরে অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি গর্বিত । বাংলাদেশি শ্রমিকদের নিরাপত্তা উন্নয়নে অ্যালায়েন্সের প্রচেষ্টাকে সহায়তা করার লক্ষ্যে শ্রমিক, সরকার এবং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ নিয়ে গঠিত উপদেষ্টাবৃন্দ দক্ষ নেতৃত্ব এবং বিশেষজ্ঞের পরামর্শ দেবেন  ।

বিস্তারিত পড়ুন এখানে

অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ প্রারম্ভিক শ্রমিক জরিপ প্রতিবেদন ।

.

বাংলাদেশের পোশাক শিল্প শ্রমিকদের কর্মস্থলের স্বাস্থ্য এবং নিরাপত্তা বিষয়ক একটি অর্ধ-বার্ষিকী প্রতিবেদন ।  বিরাজমান ঝুঁকি বিষয়ক এবং কর্মস্থলে প্রচলিত পদ্ধতি, নীতিমালা, এবং প্রকল্প সম্পর্কিত পোশাক শিল্প শ্রমিকদের জ্ঞান, সচেতনতা ও অভিজ্ঞতা উপলব্ধি করতে এবং এইসব বিষয়গুলো কিভাবে তাদের স্বাস্থ্য এবং নিরাপত্তায় প্রভাব ফেলছে তা জানতে এই প্রাপ্ত তথ্যের এক বিরাট ভূমিকা রয়েছে । বাংলাদেশ পোশাক শিল্প শ্রমিকরা তাদের কর্মস্থলে নিরাপত্তা বিষয়ক যেসব নানান বাধা বিঘ্নের সম্মুখিন হচ্ছে সেসব বিষয়গুলো উঠে এসেছে এই প্রতিবেদনে । আর এর অধিকাংশ সমস্যার সমাধান আমাদের একেবারেই হাতের নাগালের মধ্যে

সম্পূর্ণটি পেতে এখানে ডাউনলোড করুন ।

Download the key findings (infographic) here.

ঢাকায় এ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটিসমন্বয় অফিসের শুভ উদ্বোধন

.

signing-baordআসন্ন প্রকাশের জন্য: ডিসেম্বর ৯,২০১৩

বাংলাদেশ গার্মেন্ট ফ্যাক্টরির নিরাপত্তা পরিস্থতি উন্নয়নেরঅঙ্গিকার নিয়েসম্পূর্ণ প্রস্তুত বাংলাদেশ টিম ।

ঢাকা - বাংলাদেশ গার্মেন্ট ফ্যাক্টিরর জন্য একটি উন্নত অগ্নি এবং স্থাপনানিরাপত্তা ব্যাবস্থা গড়ে তোলার যে প্রচেষ্টা সেই প্রচেষ্টাকে তরান্বিত করতেসরেজমিনে কাজ শুরু করার লক্ষ্য নিয়ে আজকে ঢাকায় এ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশওয়ার্কার সেফটি তাদের দাপ্তরিক কাজ শুরুর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করছে

 

অ্যালায়েন্স সম্পর্কে বারংবার করা প্রশ্ন

বিস্তারিত এফএকিউ –এ দেখুন অ্যালায়েন্স সম্পর্কে বারংবার করা প্রশ্ন এবং সেগুলোর উত্তর

দ্রুত যোগাযোগ

অনুগ্রহপূর্বক সাধারণ এবং গণমাধ্যম ঊভয় অনুসন্ধানের জন্য এখানে ক্লিক করুন ।