Alliance for Bangladesh Worker Safety

বাংলা

কারখানাগুলো প্রাথমিক কারেকটিভ অ্যাকশন প্ল্যান(CAP)-এ সম্পূর্ণতা অর্জন করছে

নিম্নের তালিকাভুক্ত কারখানাগুলো সফলতার সহিত সংস্কার পর্যায় সম্পন্ন করেছে, যা ক্যাপ ক্লোজার ভেরিফিকেশন ভিজিট ( সিসিভিভি ) দ্বারা যাচাইকৃত । কারেকটিভ অ্যাকশন প্ল্যান-এ তালিকাভুক্ত সমস্ত গুরুতর আইটেম সংস্কার করার জন্য এই সমস্ত কারখানাগুলো প্রশংসার দাবিদার । CAP সম্পন্নকরণের জন্য প্রচুর সময় এবং বিনিয়োগের প্রয়োজন – আর এই বিনিয়োগ হলো শ্রমিক এবং কর্মচারিদের জন্য একটি নিরাপদ কর্মস্থল গড়ে তোলার লক্ষ্যে যা বাংলাদেশ পোশাক শিল্পের একটি ইতিবাচক ভাবমূর্তি গড়ে তুলতে সাহায্য করবে |

অ্যালায়েন্সের শর্তানুসারে অ্যালায়েন্স সদস্য কোম্পানিগুলোর জন্য বাংলাদেশে পণ্য উৎপাদনকারি সমস্ত তৈরি পোশাক কারখানাগুলোতে ভবন নিরাপত্তা মূল্যায়ন আবশ্যক । অনুগ্রহপূর্বক পরিদর্শন বিষয়ক আরও বিস্তারিত জানতে আমাদের মানদন্ড এবং পরিদর্শন বিষয়ক পৃষ্ঠা দেখুন । পরিদর্শন সম্পন্ন হওয়ার পর, কারখানাগুলোকে কারেকটিভ অ্যাকশন প্ল্যান (CAP ) প্রদান করা হয় যেখানে প্রতিটি নন-কমপ্লায়েন্সের জন্য এবং কর্মপন্থার জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশনাবলি প্রদান করা হয় । CAP গ্রহনের সঙ্গে সঙ্গেই সংস্কার পর্ব শুরু হয়ে যায় – কিছু কিছু আইটেম রয়েছে যেগুলো জরুরি ভিত্তিতে সম্পন্ন করার প্রয়োজন হতে পারে, আবার কিছু কিছু আইটেম (যেমন স্প্রিংকলার স্থাপন এবং স্ট্রাকচারাল রেট্রোফিটিং ) সম্পন্ন করতে এক বছরেরও বেশি সময় লাগতে পারে ।

CAP-এ উল্লেখিত সমস্ত নন-কমপ্লায়েন্স সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত সংস্কার কাজ অব্যাহত থাকবে, যা যাচাই করা হয় সিসিভিভি (CAP Closure Verification Visit)দ্বারা । কারেকটিভ অ্যাকশন প্ল্যান সম্পন্নকরণ নিশ্চিত করার জন্য সিসিভিভি পরিচালনা করা হয়, প্রাথমিক কারখানা পরিদর্শনের সময় শনাক্তকৃত অ্যালায়েন্স মানদন্ড অনুসারে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ এলাকার – যেমন ভবন, বিদ্যূৎ এবং অগ্নি নিরাপত্তা - নন-কমপ্লায়েন্স বিষয়গুলোর প্রয়োজনীয় সংস্কার সম্পন্ন হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করতেই সিসিভিভি পরিচালনা করা হয় । সিসিভিভি চলাকালিন সময়, কারখানাগুলো কারেকটিভ অ্যাকশন প্ল্যান সম্পন্ন করবে, অথবা গুরুতর সমস্যা যদি থেকে থাকে তাহলে সংস্কার অব্যাহত রাখবে ।

কর্মস্থলের নিরাপত্তা উন্নয়ন সংস্কৃতি অব্যাহত রাখতে CAP সম্পন্নকরণ কেবল মাত্র একটি প্রথম ধাপ । অ্যালায়েন্স আশা করছে যে সমস্ত কারখানাই তাদের নিরাপত্তা উন্নয়েন তাদের যে প্রতিশ্রুতি তা অব্যাহত রাখবে ।

কারখানার নাম  ঠিকানা  তারিখ

* অ্যাকর্ড অন ফায়ার এন্ড বিল্ডিং সেফটি ইন বাংলাদেশ এর সঙ্গে কারখানা তার প্রাথমিক ক্যাপ (CAP) সম্পন্ন করেছে । অ্যালায়েন্স মানদন্ড – যা দ্বারা কারখানাগুলোকে মূল্যায়ন করা হয় – গঠিত হয়েছে অ্যালায়েন্স, অ্যাকর্ড, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনলজি (বুয়েট ) এর কারিগরি বিশেষজ্ঞদের যৌথ প্রচেষ্টায় । এই মানদন্ডের পরিপ্রেক্ষিতে, অ্যালায়েন্স অ্যাকর্ড কর্তৃক কারখানা পরিদর্শন এবং প্রতিবেদন, যাচাইকরণ পরিদর্শন, ক্যাপ সম্পন্নকরণ এবং স্থগিতকরণ গ্রহন করে থাকে । অ্যালায়েন্স মানদন্ড এবং এর উন্নয়ন সম্পর্কে আরও বেশি তথ্য পাবেন এখানে

§ কারখানা তাদের প্রাথমিক ক্যাপ সম্পন্ন করেছে, কিন্তু তারা তাদের কারখানা ভবন(গুলো) সম্প্রসারণ করেছে এবং কারখানার নতুন সম্প্রসারিত এলাকায়(গুলোতে) তারা এখনও ক্যাপ সম্পন্ন করেনি ।

অ্যালায়েন্স সম্পর্কে বারংবার করা প্রশ্ন

বিস্তারিত এফএকিউ –এ দেখুন অ্যালায়েন্স সম্পর্কে বারংবার করা প্রশ্ন এবং সেগুলোর উত্তর

দ্রুত যোগাযোগ

অনুগ্রহপূর্বক সাধারণ এবং গণমাধ্যম ঊভয় অনুসন্ধানের জন্য এখানে ক্লিক করুন ।